আন্তর্জাতিক মাজলিসু রুইয়াতিল হিলাল
৩৭ ছফর শরীফ ১৪৪৪ হিজরী

দর্শকঃ চাঁদ নিয়ে বিভ্রান্তির মূল কারণ আপনি কোনটি মনে করেন?

চাঁদ গবেষকঃ কারণ অনেক তবে দুটি বিষয়কে প্রধান কারণ হিসেবে চিহ্নিত করা যেতে পারে।
১) পৃথিবীর কোথাও চাঁদ দেখা গেলে তা সারা পৃথিবীর জন্য প্রযোজ্য- এই ভুল ধারণা অনুযায়ী আরবী মাস শুরু করা
২) খালি চোখে চাঁদ না দেখে বিভিন্ন ক্রাইটেরিয়া ব্যবহার করে মাস গণনা করা।

দর্শকঃ পৃথিবীর কোথাও চাঁদ দেখা গেলে তা সারা পৃথিবীর জন্য যদি প্রযোজ্য না হয় তার কি কারন আর যারা কোথাও দেখা গেলে তা সারা পৃথিবীর জন্য প্রযোজ্য মনে করে তারই বা কি কারন?

গবেষকঃ এই বিষয়টি বোঝার জন্য দরকার “মাতলা” র বিষয়টি বোঝা। মাতলা অর্থ হচ্ছে উদয়স্থল। মাতলা নিয়ে কয়েক ধরনের ধারণা আছে যেমন

ইখতেলাফুল মাতলাঃ যারা এই মতের সমর্থক তারা প্রতি শহরে শহরে চাঁদ দেখে আরবী মাস শুরু করার পক্ষে। হযরত ইমাম মালিক, হযরত ইমাম শাফেয়ী এবং হযরত ইমাম হাম্বালী রহমতুল্লাহি আলাইহিম উনারা এই মতের সমর্থক।
ইত্তিহাদুল মাতলাঃ এই মতের অর্থ হচ্ছে কোন এলাকায় চাঁদ দেখা না গেলেও যদি নিকটবর্তী কোন এলাকায় (এক উদয়স্থলের মধ্যে) চাঁদ দেখা যায় এবং বিশ্বস্ত সূত্রে খবর পাওয়া যায় তবে সেই পার্শ্ববর্তী এলাকায় চাঁদ দেখার খবর অনুযায়ী আরবী মাস শুরু হবে। তবে এই মতের অর্থ এই নয় যে অনেক দূর দেশে চাঁদ দেখা গেলেও তা প্রযোজ্য হবে। হযরত ইমাম আবু হানিফা রহমতুল্লাহি আলাইহি তিনি এই মতের সমর্থক।

ওহাদাতাল মাতলাঃ যারা এই ধারণায় বিশ্বাসী তারা পৃথিবীর কোথাও চাঁদ দেখা গেলে সেই অনুযায়ী সারা পৃথিবীতে মাস শুরু করতে চায়। তবে এটা এক নতুন মত এটা কোন ফেকাহর উসুল নয়। আর এই মতের উদ্ভাবক সউদী ওহাবীরা।