আন্তর্জাতিক মাজলিসু রুইয়াতিল হিলাল
১৫ শাওওয়াল শরীফ ১৪৪৩ হিজরী

দর্শকঃ আমাদের দেশে একবার চাঁদ দেখা নিয়ে একটু ঝামেলাই হয়েছিলো। মাজলিসু রুইয়াতিল হিলাল (আন্তর্জাতিক) নামক চাঁদ দেখা কমিটি এবং ইসলামিক ফাউন্ডেশনের কতৃপক্ষ বলেছিলেন যে চাঁদ দেখা যায়নি কিন্তু একজন তথাকথিত নামকরা মাওলানা ও রাজনীতিবিদ বলেছিলেন যে তিনি ৩ ঘণ্টা ধরে চাঁদ দেখেছেন। তাহলে বলুন সাধারণ মানুষের রিপোর্ট না হয় বিশ্বাস করবোনা কিন্তু মাওলানার স্টেটমেন্টের কি হবে? উনাকে কি বিশ্বাস করবোনা?

চাঁদ গবেষকঃ আমি জানি আপনি কার কথা বলছেন। এই লোককে মাওলানা না বলে মালানা বলা প্রয়োজন। আর সে আসলে এক প্রতারক।আমি প্রমান করে দিচ্ছি।

বাঁকা চাঁদ দেখার জন্য সাধারনত ১০-৩৫ মিনিট ধৈর্য্য ধরতে হয়। তবে উঁচু অঞ্চলের ক্ষেত্রে কিছু কিছু ক্ষেত্রে ৫০ মিনিট অথবা আরো দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করতে হয়।

সূর্য অস্ত যাবার সর্বনিম্ন ১০ মিনিটের মধ্যে চাঁদ সাধারণত দৃশ্যমান হয়- (তবে কখনো কখনো সূর্য অস্ত যাবার সাথে সাথে বা পূর্বেও দৃশ্যমান হবার রেকর্ড আছে।) । সূর্য অস্ত যাবার ১০ মিনিটের মধ্যে যে চাঁদ দেখা যায় তা ৪০ মিনিট থেকে ৯০ মিনিট বা তার কিছু বেশী সময় ধরে আকাশে অবস্থান করে। চাঁদ আকাশে অবস্থান করা মানে এই নয় পুরো সময়টাই চাঁদ দেখা যাবে। শেষ ১০ মিনিটে আর চাঁদ দেখার সম্ভাবনা থাকেনা কারণ তখন দিগন্ত রেখার লাল আলোয় চাঁদ ডুবে যায়। তাহলে ২৯ দিনের চাঁদ যেখানে তিন ঘন্টা আকাশে অবস্থানই করেনা, সেই মালানা কি করে তা দেখেছিলো? এর অর্থ সে মিথ্যা কথা বলেছিলো।চাঁদ দেখা নিয়ে এ রকম মিথ্যাচার অনেক দেশই করছে। সউদী আরবও করছে।

দর্শকঃ আমি এর আগেও আপনাকে প্রশ্ন করেছিলাম সউদী আরব সহ অন্য অনেক দেশের চাঁদ দেখা নিয়ে মিথ্যাচারিতা করে কি লাভ। আমি কিন্তু এখনো তার উত্তর পাইনি।

চাঁদ গবেষকঃ যেদিন আপনি সহজেই বুজতে সক্ষম হবেন যে সউদী আরবে চাঁদ দেখা না যাওয়ার পরেও তারা মাস শুরু করেছে সেদিন এর কারণ বলা যাবে। অপেক্ষায় থাকুন।